অনিল রায়

২৬ মে ১৯০১ সালে মানিকগঞ্জের বায়রা গ্রামে মামার বাড়িতে জন্মগ্রহণ করেন অনিল রায়। তার পৈতৃক বাড়ি ছিল ঢাকার নবাবগঞ্জ থানার গোবিন্দপুর গ্রামে। ঢাকার বাইরে জন্মগ্রহণ করলেও অনিল রায়ের জীবনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অংশটি কাটে ঢাকাতে।

অতুল প্রসাদ সেন (১৮৭১-১৯৩৪)

২০ অক্টোবর ১৮৭১ সালে ঢাকায় জন্মগ্রহণকারী অতুল প্রসাদ সেন একাধারে ছিলেন কবি, গীতিকার ও গায়ক। তার আদি নিবাস ছিল ফরিদপুরের দক্ষিণ বিক্রমপুরের মগর গ্রামে। তার পিতা রাজপ্রসাদ সেন ব্রাহ্ম ঢাকার চিকিৎসক ছিল বলে জানা যায়।

ঢাকার প্রাকৃতিক দুর্যোগ

বাংলার এ অংশের সঙ্গে প্রাকৃতিক দুর্যোগ ছিল নিত্যনৈমত্তিক ব্যাপার। ঘুর্ণিঝড়, বন্যা, দুর্ভিক্ষ, অতিবৃষ্টি, অনাবৃষ্টি, ভূমিকম্পসহ নানাবিধ প্রাকৃতিক দুযোর্গ মোকাবেলা করেই এ অঞ্চলের মানুষকে টিকে থাকতে হত।

ঢাকার সভা-সমিতি-সংগঠন

ইতিহাসের পাতায় দেখা যায়, দেশ-বিদেশের বহু কবি-সাহিত্যিক-শিল্প বিভিন্ন সময় ভাগ্যবদলের আশায় এই শহর ঢাকায় আগমন করেন। তবে মুদ্রণ যন্ত্র স্থাপনের পরে ঢাকায় সাহিত্যপ্রেমীদের আনাগোনা বাড়তে থাকে।

ঢাকায় বিদ্রোহ-আন্দোলন-দাঙ্গা

ঢাকার ইতিহাসে যুদ্ধ-বিদ্রোহ-আন্দোলন-দাঙ্গার বহু ঘটনা রয়েছে তবে তার সমান্য কয়েকটি ঘটনা সম্পর্কেই জানা যায়। আদিতে ঢাকায় মগ, পুর্তগিজ ও আরাকানিদের আক্রমণ ছিল নিয়মিত ঘটনা।

ঢাকার দোকানপাট

সম্ভবত আদিতে ঢাকায় জিনিসপত্র বেচাকেনায় প্রচলিত ছিল বিনিময় প্রথা। সেসময় বেচাকেনার মূল কেন্দ্র ছিল হাট-বাজার বা মেলাতে। তবে উনিশ শতক থেকে শহরের বাজার ছাড়াও বিভিন্ন মহল্লায় স্থায়ী দোকান বসার কথা জানা যায়। ১৮২৪ সালে বিশপ হেবার ঢাকার বাজারে ইউরোপীয় পণ্যের দোকান দেখে বিস্ময় প্রকাশ করেন। এই দোকানের খরিদদার ছিল সম্ভবত ঢাকাস্থ বিদেশী বণিক, স্থানীয় জমিদার ও ঢানাধ্য শ্রেণী।

এই শহর নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে যে তথ্য-উপাত্ত্য সংগ্রহ করেছি গত এক দশকের বেশি সময় ধরে তা নিয়ে কিছু একটা করবার ইচ্ছে ছিল বহুদিন ধরেই। নানা…

error: Content is protected !!